এশিয়া কাপে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক নাজমুল হোসেন শান্ত ইনজুরির কারণে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে গেছেন।

গত ৩ সেপ্টেম্বর লাহোরে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ১০৪ রানের সেঞ্চুরিসহ শান্তর অসাধারণ পারফরম্যান্সে বাম হ্যামস্ট্রিং অস্বস্তি রয়ে যায়।

পরের দিন করা একটি এমআরআই-তে পেশী ছিঁড়ে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়, যার ফলে বিসিবির মেডিকেল টিম শান্তকে আসন্ন আইসিসি পুরুষ ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০২৩-এর জন্য সংরক্ষণ ের জন্য বিশ্রামের পরামর্শ দেয়।

জাতীয় দলের ফিজিও বায়েজেদুল ইসলাম খান বলেন, ‘ব্যাটিংয়ের সময় হ্যামস্ট্রিংব্যথার অভিযোগ করে ফিল্ডিং করতে পারেননি তিনি। আমাদের একটি এমআরআই স্ক্যান করা হয়েছিল যা পেশী টিয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে। সতর্কতা হিসেবে শান্ত আর টুর্নামেন্টে অংশ নেবেন না এবং পুনর্বাসন শুরু করতে এবং বিশ্বকাপের প্রস্তুতি নিতে দেশে ফিরবেন।

যদিও এখনও কোনও প্রতিস্থাপনের নাম ঘোষণা করা হয়নি, তবে জ্বর থেকে সেরে ওঠার পরে লিটন দাসের ফিরে আসা দলকে উল্লেখযোগ্যভাবে উত্সাহিত করবে।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে হার দিয়ে শুরু হলেও আফগানিস্তানের বিপক্ষে ৮৯ রানের জয় দিয়ে এশিয়া কাপে বাংলাদেশের যাত্রা ছিল মিশ্র। চিত্তাকর্ষক নেট রান রেট (এনআরআর) নিয়ে দলটি সুপার ফোর পর্যায়ে উন্নীত হয়েছে।

শ্রীলংকার বিপক্ষে ধৈর্যশীল ৮৯ রান এবং আফগানিস্তানের বিপক্ষে দুর্দান্ত সেঞ্চুরি করে শান্ত টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের হয়ে দুর্দান্ত পারফর্মার ছিলেন, যা পুরুষদের ওয়ানডেতে বাংলাদেশের তৃতীয় সর্বোচ্চ স্কোরে অবদান রেখেছিল।

বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হিসেবে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রস্তুতি নিচ্ছে বাংলাদেশ। আগামী ৭ অক্টোবর ধর্মশালায় আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করবে তারা।

টাইগাররা এখনও বিশ্বকাপের জন্য তাদের চূড়ান্ত স্কোয়াড ঘোষণা করেনি, ক্রিকেট প্রেমীরা বিশ্ব মঞ্চে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করবে তা দেখার জন্য আগ্রহী।