উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান ইমাম-উল-হকের বীরত্বপূর্ণ হাফ সেঞ্চুরির সুবাদে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম টেস্টে জয় পায় পাকিস্তান। ১৩১ রানের কঠিন লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে গালে শেষ দিনে চার উইকেট বাকি থাকতেই ৬ উইকেটে ১৩৩ রান করে পাকিস্তান।

৩ উইকেটে ৪৮ রান নিয়ে দিন শুরু করে অধিনায়ক বাবর আজমসহ স্পিনার প্রবাথ জয়াসুরিয়া ২৪ রানে আরও তিন উইকেট হারায় পাকিস্তান। তবে পাকিস্তানের প্রথম ইনিংসে অপরাজিত ২০৮ রানের পর আজম ও সৌদ শাকিলের সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ অংশীদারিত্ব গড়েন হক।

ইমাম-উল-হকের অপরাজিত ৫০ রান পাকিস্তানের জয় নিশ্চিত করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিল। বাঁহাতি পেসার জয়াসুরিয়ার চার উইকেট শ্রীলঙ্কার আশা বাঁচিয়ে রাখলেও হকের স্থিতিস্থাপকতা পাকিস্তানের জয় নিশ্চিত করে।

পাকিস্তানের ৪৬১ রানের মধ্যে সৌদ শাকিলের অসাধারণ প্রথম টেস্ট ডাবল সেঞ্চুরির মাধ্যমে ম্যাচটি তুলে ধরা হয়েছিল, যা প্রথম ইনিংসে ১৪৯ রানের গুরুত্বপূর্ণ লিড অর্জন করেছিল। ষষ্ঠ উইকেটে আগা সালমানের সঙ্গে তার ১৭৭ রানের পার্টনারশিপ পাকিস্তানের পক্ষে জোয়ার ঘুরিয়ে দেয়।

ধনঞ্জয়া ডি সিলভার ৮২ রান সত্ত্বেও শ্রীলঙ্কাকে ২৭৯ রানে গুটিয়ে দিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন পাকিস্তানের স্পিনার নোমান আলী ও আবরার আহমেদ। হাঁটুর ইনজুরির কারণে এক বছর মাঠের বাইরে থাকার পর টেস্টে পাঁচ উইকেট নিয়ে টেস্ট ক্রিকেটে ফিরেছেন পাকিস্তানের পেসার শাহিন শাহ আফ্রিদি।

রোমাঞ্চকর এই জয়ের পর নতুন বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ চক্রে ১২ পয়েন্ট সংগ্রহ করেছে পাকিস্তান। কলম্বোতে সোমবার থেকে শুরু হবে দুই ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট।