ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের (বিসিসিআই) সেক্রেটারি ও এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের (এসিসি) সভাপতি জয় শাহের প্রতি হতাশা প্রকাশ করেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। লাহোরে পিসিবি আয়োজিত আনুষ্ঠানিক অনুষ্ঠানের আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জয় শাহ এশিয়া কাপ ২০২৩-এর সূচি ঘোষণা করায় পিসিবির অসন্তোষ দেখা দিয়েছে।

সূত্রের খবর, পিসিবি ও এসিসির মধ্যে চুক্তি হয়েছিল যে অনুষ্ঠানের পাঁচ মিনিটের মধ্যে সূচি প্রকাশ করা হবে। তবে নির্ধারিত অনুষ্ঠানের আধা ঘণ্টা আগে সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে জয় শাহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সূচি প্রকাশ করেন।

যদিও এসিসি প্রাথমিক ঘোষণার কারণ হিসাবে সময়ের পার্থক্য নিয়ে ভুল বোঝাবুঝির কথা উল্লেখ করেছে, তবে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে প্রকৃত সময়ের ব্যবধান মাত্র আধা ঘন্টা, যা জয় শাহের কর্মকাণ্ডকে পিসিবি এবং ক্রিকেট সম্প্রদায়ের জন্য বিস্ময়কর এবং মর্মান্তিক করে তুলেছে।

কিছু সূত্র বলছে যে জয় শাহের এই ঘোষণা পূর্ববর্তী বিতর্কের দ্বারা অনুপ্রাণিত হতে পারে, যার মধ্যে এশিয়া কাপের ম্যাচগুলির জন্য পাকিস্তান সফরের জন্য পিসিবির জাকা আশরাফের আমন্ত্রণ গ্রহণ করেছিলেন কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে।

এই পরিস্থিতি সত্ত্বেও, এশিয়া কাপ প্রাথমিক পরিকল্পনার চেয়ে একদিন আগে ৩০ আগস্ট শুরু হতে চলেছে, মুলতানে উদ্বোধনী ম্যাচে পাকিস্তানের মুখোমুখি হবে নেপাল। টুর্নামেন্টটি ৫০ ওভারের ফর্ম্যাট অনুসরণ করবে এবং এতে ১৩ টি ম্যাচ অন্তর্ভুক্ত থাকবে।

‘এ’ গ্রুপে রয়েছে পাকিস্তান, ভারত ও নেপাল এবং ‘বি’ গ্রুপে রয়েছে শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান। প্রতিটি গ্রুপ থেকে শীর্ষ দুটি দল সুপার ফোর পর্বে উঠবে, যেখানে তারা ফাইনালে জায়গা পাওয়ার জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে। আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর কলম্বোতে অনুষ্ঠিত হবে ফাইনাল ম্যাচ।

এখানে সংশোধিত সময়সূচী:

৩০ আগস্ট – পাকিস্তান বনাম নেপাল, মুলতান ক্রিকেট স্টেডিয়াম, মুলতান, পাকিস্তান
৩১ আগস্ট – বাংলাদেশ বনাম শ্রীলঙ্কা, পাল্লেকেলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম, ক্যান্ডি, শ্রীলঙ্কা
২ সেপ্টেম্বর – পাকিস্তান বনাম ভারত, পাল্লেকেলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম, ক্যান্ডি, শ্রীলঙ্কা
৩ সেপ্টেম্বর – বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তান, গাদ্দাফি স্টেডিয়াম, লাহোর, পাকিস্তান
৪ সেপ্টেম্বর – ভারত বনাম নেপাল, পাল্লেকেলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম, ক্যান্ডি, শ্রীলঙ্কা
৫ সেপ্টেম্বর – আফগানিস্তান বনাম শ্রীলঙ্কা, গাদ্দাফি স্টেডিয়াম, লাহোর, পাকিস্তান
৬ সেপ্টেম্বর – এ১ বনাম বি২ (সুপার-৪), গাদ্দাফি স্টেডিয়াম, লাহোর, পাকিস্তান৯ সেপ্টেম্বর – বি১ বনাম বি২ (সুপার-৪), আর প্রেমাদাসা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম, কলম্বো, শ্রীলঙ্কা
১০ সেপ্টেম্বর – এ১ বনাম এ২ (সুপার-৪), আর প্রেমাদাসা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম, কলম্বো, শ্রীলঙ্কা
১২ সেপ্টেম্বর – এ২ বনাম বি১ (সুপার-৪), আর প্রেমাদাসা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম, কলম্বো, শ্রীলঙ্কা
১৪ সেপ্টেম্বর – এ১ বনাম বি১ (সুপার-৪), আর প্রেমাদাসা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম, কলম্বো, শ্রীলঙ্কা
১৫ সেপ্টেম্বর – এ২ বনাম বি২ (সুপার-৪), আর প্রেমাদাসা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম, কলম্বো, শ্রীলঙ্কা
১৭ সেপ্টেম্বর – ফাইনাল – ১ বনাম ২, আর প্রেমাদাসা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম, কলম্বো, শ্রীলঙ্কা
১৯ সেপ্টেম্বর – ফাইনালের জন্য রিজার্ভ ডে