চলতি সপ্তাহের শুরুতে এশিয়া কাপ২০২৩-এর জন্য ডিজাইন করা নতুন জার্সি উন্মোচন করেছে পাকিস্তান। খেলোয়াড়দের নিজ নিজ দলের ইউনিফর্মে সজ্জিত ছবি গুলি দ্রুত বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে ছড়িয়ে পড়ে। যাইহোক, এই দৃশ্যগুলির মধ্যে একটি উল্লেখযোগ্য পর্যবেক্ষণ করা হয়েছিল – এশিয়া কাপের প্রতীকের নীচে আয়োজক দেশের নামটি স্পষ্টভাবে বাদ দেওয়া।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) এখন এশিয়া কাপের জার্সিতে স্বাগতিক দেশের চিহ্ন ের অনুপস্থিতির কারণে উদ্ভূত উদ্বেগগুলি সমাধানের জন্য একটি ব্যাখ্যা দিয়েছে। পিসিবির বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি) সম্মিলিতভাবে গত এশিয়া কাপের জার্সি থেকে আয়োজক দেশের নাম বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। এই রেজুলেশনটি দুদকের আলোচনার সময় অনুমোদিত হয়েছিল এবং ইভেন্টের ব্র্যান্ডিং জুড়ে অভিন্নতা বাড়ানোর লক্ষ্যে ছিল। একইভাবে, আয়োজক দেশের মর্যাদার পাশাপাশি বছরের অন্তর্ভুক্তি বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল।

এই প্রস্তাবের যৌক্তিকতা খুঁজে পাওয়া যায় আগের সংস্করণের জার্সিতে “শ্রীলঙ্কা ২০২২” এবং “সংযুক্ত আরব আমিরাত ২০২২” এর মতো পদবীগুলির উপস্থিতি।

পিসিবির একজন প্রতিনিধি বলেন, ‘আমরা আগে যেমন আলোচনা করেছিলাম, গত এশিয়া কাপের সময় ইচ্ছাকৃতভাবে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল যে টুর্নামেন্টের লোগোতে বছর এবং আয়োজকের নাম অন্তর্ভুক্ত করা হবে না। এই সিদ্ধান্তটি প্রচলিত লোগোগুলির একাধিক বৈচিত্রের অস্তিত্বের কারণে উদ্ভূত হয়েছিল, কিছুতে ‘শ্রীলঙ্কা ২০২২’, অন্যরা ‘সংযুক্ত আরব আমিরাত ২০২২’ প্রদর্শন করে এবং কিছু কেবল ‘২০২২’ বছর। আমাদের প্রাথমিক লক্ষ্য ছিল লোগো দৃশ্যমানতা বাড়ানোর জন্য আমাদের ব্র্যান্ডিং পদ্ধতিতে ধারাবাহিকতা নিশ্চিত করা।

মুখপাত্র স্পষ্ট করেছেন যে জার্সিতে “শ্রীলঙ্কা” এবং “২০২২” এর উপস্থিতি লোগো সংশোধনের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হওয়ার আগে ইউনিফর্মে এই উপাদানগুলি মুদ্রিত হওয়ার কারণে হয়েছিল। ফলে এবারের এশিয়া কাপের জন্য বছর ও আয়োজক দেশের নাম কোনো যোগাযোগে অন্তর্ভুক্ত না করে এশিয়া কাপের লোগো ব্যবহারের জন্য শুরু থেকেই সচেতন প্রচেষ্টা চালানো হয়েছে।

পিসিবি’র বিবৃতি অনুযায়ী টুর্নামেন্টের নামকরণের বিষয়টিও স্পষ্ট করেছেন ওই কর্মকর্তা। “এটা মনে রাখা জরুরী যে টুর্নামেন্টের নামকরণ ‘লিঙ্গ-ফর্ম্যাট-টুর্নামেন্টের নাম-বছর, শহর, দেশ’ কাঠামোর সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ হবে। উদাহরণস্বরূপ, মুলতানে অনুষ্ঠিত ম্যাচগুলির জন্য স্টেডিয়ামের ব্র্যান্ডিংটি লেখা হবে: ‘পুরুষদের ওয়ানডে এশিয়া কাপ ২০২৩ – মুলতান, পাকিস্তান’।

এটা তুলে ধরা গুরুত্বপূর্ণ যে, আয়োজক মর্যাদার ক্ষেত্রে জার্সিতে পাকিস্তানের নাম না থাকার কারণে বিশেষভাবে উদ্বেগ ের সৃষ্টি হয়েছিল। এই সিদ্ধান্তটি পাকিস্তান ক্রিকেট সমর্থকদের কাছ থেকে উল্লেখযোগ্য সমালোচনা রয়ে গেছে।