গালে প্রথম টেস্ট ের সময় সৌদ শাকিল ক্রিকেট ইতিহাসের পাতায় নিজের নাম লিখিয়েছিলেন, এমন একটি অসাধারণ কৃতিত্ব অর্জন করেছিলেন যা শ্রীলঙ্কার মাটিতে কোনও পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান কখনও অর্জন করেননি – ডাবল সেঞ্চুরি।

তার অপরাজিত ২০৮ রানের অসাধারণ ইনিংস শ্রীলঙ্কায় পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানের আগের সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত টেস্ট স্কোরকে ছাড়িয়ে যায়, যা মোহাম্মদ হাফিজ (১৯৬) এবং ইউনিস খান (১৭৭) ধরে রেখেছিলেন।

পাকিস্তানের ২৩তম ব্যাটসম্যান হিসেবে টেস্ট ক্রিকেটে ডাবল সেঞ্চুরি করার কীর্তি গড়লেন সৌদ শাকিল।

তাঁর উজ্জ্বলতা এখানেই শেষ নয় – সৌদ শাকিল এখন এই বিভাগে আবদুল্লাহ শফিক (৭২০) এবং জাভেদ মিয়াঁদাদ (৬৫৪) কে ছাড়িয়ে মাত্র ১১ টি টেস্ট ইনিংসে পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানের সর্বাধিক রান (৭৮৮) রেকর্ডের মালিক।

১৯৭১ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জহির আব্বাসের পর দ্বিতীয় পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান হিসেবে সিরিজের প্রথম টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি করার কীর্তি গড়েন শাকিল।

তার ডাবল সেঞ্চুরি পাকিস্তান ক্রিকেটের জন্য একটি উল্লেখযোগ্য খরাও ভেঙেদিয়েছিল, কারণ দুই বছরেরও বেশি সময় ধরে কোনও খেলোয়াড় টেস্ট ম্যাচে এমন কৃতিত্ব অর্জন করতে পারেনি। সৌদ শাকিলের আগে আবিদ আলি ২০২১ সালের ৮ মে হারারেতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২১৫ রানের অপরাজিত স্কোর নিয়ে টেস্ট ক্রিকেটে ডাবল সেঞ্চুরি করা শেষ পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান ছিলেন।

ডাবল সেঞ্চুরির পাশাপাশি সৌদ শাকিল তার প্রথম ছয় ম্যাচের প্রতিটিতে পঞ্চাশ বা তার বেশি রান করে টেস্ট ক্রিকেটারদের একটি অভিজাত দলে যোগ দিয়েছিলেন। এটি তাকে ক্রিকেট কিংবদন্তি সুনীল গাভাস্কার, বাসিল বুচার, সাঈদ আহমেদ এবং বার্ট সাটক্লিফের সাথে সম্মানিত সঙ্গ দেয় – এটি নিজেই একটি উল্লেখযোগ্য অর্জন।

তরুণ এই ক্রিকেটারের কৃতিত্ব টেস্ট ক্রিকেটে তার ক্রমবর্ধমান উত্তরাধিকারকে আরও বাড়িয়ে তুলছে। সৌদ শাকিল যদি তার পরবর্তী টেস্টে আরও একটি ফিফটি করতে সক্ষম হন তবে তিনি একটি নতুন বিশ্ব রেকর্ড স্থাপন করবেন, ক্রিকেট ইতিহাসে তার স্থানআরও দৃঢ় করবেন।