পাপুয়া নিউ গিনির ব্যারামুন্ডিরা চলমান পূর্ব এশিয়া প্যাসিফিক বাছাইপর্বে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স ের মাধ্যমে আইসিসি পুরুষদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ২০২৪-এ প্রবেশ করেছে। টুর্নামেন্টের আয়োজক পাপুয়া নিউ গিনি ফেভারিট হিসাবে বাছাইপর্বে প্রবেশ করেছিল এবং তারা প্রভাবশালী পারফরম্যান্সের মাধ্যমে প্রত্যাশা পূরণ করেছিল।

আসাদ ভালার নেতৃত্বাধীন পিএনজি দল এখন পর্যন্ত খেলা পাঁচটি ম্যাচ জিতে তাদের দক্ষতা প্রদর্শন করেছে। তারা ভানুয়াতু এবং ফিলিপাইনের বিপক্ষে দু’বার জয় লাভ করে, পাশাপাশি জাপানের বিরুদ্ধেও জয় লাভ করে। এই জয়ের ফলে তারা মোট ১০ পয়েন্ট অর্জন করেছে, শনিবার, ২৯ জুলাই জাপানের বিপক্ষে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই ২০২৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে তাদের স্থান নিশ্চিত করেছে।

ভানুয়াতুর বিপক্ষে দুর্দান্ত জয় দিয়ে যোগ্যতা অর্জনের পথ শুরু হয়েছিল, জন কারিকোর ৩/৬ এর অসাধারণ বোলিং পারফরম্যান্স তাকে ম্যাচ সেরার খেতাব এনে দিয়েছিল। তারা সহজেই লক্ষ্য তাড়া করে ৯ উইকেটের জয় নিশ্চিত করে।

ফিলিপাইনের বিপক্ষে কাবুয়া মোরিয়ার হ্যাটট্রিকসহ ব্যতিক্রমী পাঁচ উইকেট শিরোনামে উঠে আসে। প্রথমে ব্যাট করে ১৬২/৭ রান করার পর পিএনজির বোলাররা ফিলিপাইনের ব্যাটিং লাইনআপভেঙে দেয় এবং তাদের মাত্র ৪৫ রানে আটকে রাখে।

তাদের জয়ের ধারা অব্যাহত রেখে পাপুয়া নিউ গিনি জাপান ও ভানুয়াতুর বিপক্ষে যথাক্রমে ৬ উইকেটে ও ৩৯ রানে জয় লাভ করে।

ফিলিপাইনের বিপক্ষে তাদের সর্বশেষ ম্যাচটি পোর্ট মোরেসবিতে ১০০ রানের চিত্তাকর্ষক জয় দিয়ে আবারও তাদের দক্ষতা প্রদর্শন করেছিল। ১১৮ রানের অসাধারণ উদ্বোধনী জুটি স্বাগতিকদের ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ২২৯ রানের বিশাল স্কোর তৈরি করে। ফিলিপাইনের জন্য লক্ষ্যটি খুব বেশি প্রমাণিত হয়েছিল কারণ পিএনজির বোলাররা শক্ত পারফরম্যান্স করেছিল, তাদের১২৯/৭  এ সীমাবদ্ধ করেছিল এবং ২০২৪ সালে টি-২০ বিশ্বকাপের জন্য তাদের যোগ্যতা অর্জন করেছিল।