[fusion_builder_container type=”flex” hundred_percent=”no” hundred_percent_height=”no” min_height_medium=”” min_height_small=”” min_height=”” hundred_percent_height_scroll=”no” align_content=”stretch” flex_align_items=”flex-start” flex_justify_content=”flex-start” flex_column_spacing=”” hundred_percent_height_center_content=”yes” equal_height_columns=”no” container_tag=”div” menu_anchor=”” hide_on_mobile=”small-visibility,medium-visibility,large-visibility” status=”published” publish_date=”” class=”” id=”” spacing_medium=”” margin_top_medium=”” margin_bottom_medium=”” spacing_small=”” margin_top_small=”” margin_bottom_small=”” margin_top=”” margin_bottom=”” padding_dimensions_medium=”” padding_top_medium=”” padding_right_medium=”” padding_bottom_medium=”” padding_left_medium=”” padding_dimensions_small=”” padding_top_small=”” padding_right_small=”” padding_bottom_small=”” padding_left_small=”” padding_top=”” padding_right=”” padding_bottom=”” padding_left=”” link_color=”” link_hover_color=”” border_sizes=”” border_sizes_top=”” border_sizes_right=”” border_sizes_bottom=”” border_sizes_left=”” border_color=”” border_style=”solid” box_shadow=”no” box_shadow_vertical=”” box_shadow_horizontal=”” box_shadow_blur=”0″ box_shadow_spread=”0″ box_shadow_color=”” box_shadow_style=”” z_index=”” overflow=”” gradient_start_color=”” gradient_end_color=”” gradient_start_position=”0″ gradient_end_position=”100″ gradient_type=”linear” radial_direction=”center center” linear_angle=”180″ background_color=”” background_image=”” skip_lazy_load=”” background_position=”center center” background_repeat=”no-repeat” fade=”no” background_parallax=”none” enable_mobile=”no” parallax_speed=”0.3″ background_blend_mode=”none” video_mp4=”” video_webm=”” video_ogv=”” video_url=”” video_aspect_ratio=”16:9″ video_loop=”yes” video_mute=”yes” video_preview_image=”” render_logics=”” absolute=”off” absolute_devices=”small,medium,large” sticky=”off” sticky_devices=”small-visibility,medium-visibility,large-visibility” sticky_background_color=”” sticky_height=”” sticky_offset=”” sticky_transition_offset=”0″ scroll_offset=”0″ animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=”” filter_hue=”0″ filter_saturation=”100″ filter_brightness=”100″ filter_contrast=”100″ filter_invert=”0″ filter_sepia=”0″ filter_opacity=”100″ filter_blur=”0″ filter_hue_hover=”0″ filter_saturation_hover=”100″ filter_brightness_hover=”100″ filter_contrast_hover=”100″ filter_invert_hover=”0″ filter_sepia_hover=”0″ filter_opacity_hover=”100″ filter_blur_hover=”0″][fusion_builder_row][fusion_builder_column type=”1_1″ align_self=”auto” content_layout=”column” align_content=”flex-start” valign_content=”flex-start” content_wrap=”wrap” spacing=”” center_content=”no” link=”” target=”_self” link_description=”” min_height=”” hide_on_mobile=”small-visibility,medium-visibility,large-visibility” sticky_display=”normal,sticky” class=”” id=”” type_medium=”” type_small=”” order_medium=”0″ order_small=”0″ dimension_spacing_medium=”” dimension_spacing_small=”” dimension_spacing=”” dimension_margin_medium=”” dimension_margin_small=”” margin_top=”” margin_bottom=”” padding_medium=”” padding_small=”” padding_top=”” padding_right=”” padding_bottom=”” padding_left=”” hover_type=”none” border_sizes=”” border_color=”” border_style=”solid” border_radius=”” box_shadow=”no” dimension_box_shadow=”” box_shadow_blur=”0″ box_shadow_spread=”0″ box_shadow_color=”” box_shadow_style=”” overflow=”” background_type=”single” gradient_start_color=”” gradient_end_color=”” gradient_start_position=”0″ gradient_end_position=”100″ gradient_type=”linear” radial_direction=”center center” linear_angle=”180″ background_color=”” background_image=”” background_image_id=”” background_position=”left top” background_repeat=”no-repeat” background_blend_mode=”none” render_logics=”” filter_type=”regular” filter_hue=”0″ filter_saturation=”100″ filter_brightness=”100″ filter_contrast=”100″ filter_invert=”0″ filter_sepia=”0″ filter_opacity=”100″ filter_blur=”0″ filter_hue_hover=”0″ filter_saturation_hover=”100″ filter_brightness_hover=”100″ filter_contrast_hover=”100″ filter_invert_hover=”0″ filter_sepia_hover=”0″ filter_opacity_hover=”100″ filter_blur_hover=”0″ animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=”” last=”no” border_position=”all”][fusion_content_boxes layout=”icon-with-title” columns=”1″ link_type=”” button_span=”” link_area=”” link_target=”” icon_align=”left” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_delay=”” animation_offset=”” hide_on_mobile=”small-visibility,medium-visibility,large-visibility” class=”” id=”” title_size=”” heading_size=”2″ title_color=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” body_color=”” backgroundcolor=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”no” iconcolor=”” icon_circle=”” icon_circle_radius=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” icon_size=”” icon_hover_type=”” hover_accent_color=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” margin_top=”” margin_bottom=””][fusion_content_box title=”ম্যাচের বিবরণ” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

অস্ট্রেলিয়ার ২০২৩ সালের দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের উদ্বোধনী একদিনের আন্তর্জাতিক (ওডিআই) ম্যাচটি বৃহস্পতিবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ ব্লোমফন্টেইনের মানগাং ওভালে অনুষ্ঠিত হবে।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”ম্যাচ প্রিভিউ” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

অস্ট্রেলিয়া সফরে দক্ষিণ আফ্রিকার পারফরমেন্স অনেক কিছু রয়ে গেছে, তাদের বিপক্ষে তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ক্লিন সুইপ হয়েছে। এখন পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে অস্ট্রেলিয়া দলের মুখোমুখি হওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে তারা। অস্ট্রেলিয়ার টি-টোয়েন্টি পারফরম্যান্স ছিল ব্যতিক্রমী, এমনকি তাদের কিছু গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়কে দলে ছাড়াই। তারা টি-টোয়েন্টি সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে জয় লাভ করে এবং এখন আসন্ন পাঁচ ওয়ানডে ম্যাচে তাদের সাফল্য অব্যাহত রাখার লক্ষ্য রাখবে।

এই সিরিজটি উভয় দলের জন্য উল্লেখযোগ্য গুরুত্ব বহন করে, বিশেষত ওয়ানডে বিশ্বকাপ কাছাকাছি আসার সাথে সাথে। এটি উভয় পক্ষকে তাদের স্কোয়াডপরিমার্জন এবং আসন্ন টুর্নামেন্টের জন্য প্রস্তুতি নেওয়ার সুযোগ দেয়।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”দক্ষিণ আফ্রিকা পর্যালোচনা” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

টি-টোয়েন্টি সিরিজে দক্ষিণ আফ্রিকার পারফরম্যান্স সন্তোষজনক ছিল না, যার ফলে তারা পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হয়েছিল। কুইন্টন ডি কক, এনরিচ নর্টজে, হেনরিখ ক্লাসেন, কাগিসো রাবাদা এবং ডেভিড মিলারের মতো গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়রা এই ওয়ানডে সিরিজের জন্য দলে ফিরেছেন। তাদের উপস্থিতি বোলিং ইউনিটকে শক্তিশালী করে, যারা টি-টোয়েন্টি সিরিজে লড়াই করেছিল। কাগিসো রাবাদা এবং এনরিচ নর্টজের সংযোজন বোলিং আক্রমণে প্রয়োজনীয় শক্তি এবং গভীরতা সরবরাহ করবে বলে আশা করা হচ্ছে এবং আমরা এই সিরিজে তাদের কাছ থেকে শক্তিশালী পারফরম্যান্স আশা করি।

ওয়ানডে দলে দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটিং লাইনআপের নেতৃত্ব দিয়েছেন টেম্বা বাভুমা। ২৫ টি ওয়ানডে ম্যাচ এবং ১১৫০ রান নিয়ে বাভুমার একটি শক্ত ট্র্যাক রেকর্ড রয়েছে, বিশেষত ঘরোয়া কন্ডিশনে। তার অভিজ্ঞতা ও সামর্থ্য এই সিরিজে দলের পারফরম্যান্সে ইতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে। এই দলে আরও রয়েছেন দেওয়াল্ড ব্রেভিস, রিজা হেনড্রিকস, এইডেন মার্করাম, ডেভিড মিলার এবং রাসি ভ্যান ডার ডুসেন।

উইকেটরক্ষক বিভাগে দক্ষিণ আফ্রিকার দলে আছেন হেনরিখ ক্লাসেন, ত্রিস্তান সুটবস ও কুইন্টন ডি কক। এই ভারসাম্যপূর্ণ ওয়ানডে স্কোয়াড টি-টোয়েন্টি সিরিজের তুলনায় এই ওয়ানডে সিরিজে দক্ষিণ আফ্রিকার পারফরম্যান্সউল্লেখযোগ্যভাবে উন্নত হবে বলে প্রত্যাশা জাগিয়ে তুলেছে।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”অস্ট্রেলিয়া পর্যালোচনা” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

অধিনায়ক মিচেল মার্শের নেতৃত্বাধীন টি-টোয়েন্টি সিরিজে অস্ট্রেলিয়ার পারফরম্যান্স ছিল সত্যিই অসাধারণ। মার্শ ওয়ানডে সিরিজেও জাহাজ পরিচালনা চালিয়ে যাচ্ছেন। তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে মোট ১৮৬ রান সংগ্রহ করে তিনি অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে স্ট্যান্ডআউট ব্যাটসম্যান হিসাবে আবির্ভূত হন। এই ওয়ানডে সিরিজে তার পারফরমেন্স নিয়ে প্রত্যাশা অনেক বেশি। উল্লেখ্য, অস্ট্রেলিয়ার নিয়মিত অধিনায়ক প্যাট কামিন্স সম্প্রতি ইনজুরি থেকে সেরে উঠলেও বিশ্বকাপের স্কোয়াডে নেই। এছাড়া অস্ট্রেলিয়ার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, মিচেল স্টার্ক ও স্টিভেন স্মিথও দলে নেই।

এই সিরিজের জন্য ডেভিড ওয়ার্নারের পাশাপাশি দলে ফিরেছেন জশ হ্যাজেলউড, মার্নাস লাবুশেন এবং ক্রিস গ্রিন। মার্কাস স্টয়নিস, ক্যামেরন গ্রিন, অ্যারন হার্ডি এবং মার্নাস লাবুশেনের মতো দক্ষ অলরাউন্ডারদের উপস্থিতিথেকে অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং লাইনআপও উপকৃত হয়। জোশ ইংলিশ এবং অ্যালেক্স ক্যারিও দলে গভীরতা যোগ করেছেন।

বোলিং বিভাগে নাথান এলিস, জশ হ্যাজেলউড, তানভীর সাঙ্গা, অ্যাডাম জাম্পা, স্পেন্সার জনসন এবং ফিরে আসা প্যাট কামিন্সকে নেতৃত্ব দেবেন। তবে ধারণা করা হচ্ছে কামিন্স হয়তো এই সিরিজে খেলার সুযোগ পাবেন না।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”দক্ষিণ আফ্রিকার ওয়ানডে ইতিহাস” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

দক্ষিণ আফ্রিকার ওয়ানডে রেকর্ড মোট ৬৫৪ টি ম্যাচ। এর মধ্যে তারা ৩৯৯ টি ম্যাচে বিজয়ী হয়েছিল এবং বিরোধী দলগুলি ২৮৮ টি জয় পেয়েছিল। দক্ষিণ আফ্রিকার সাথে জড়িত ২১ টি ম্যাচ ছিল যা কোনও ফলাফল ছাড়াই শেষ হয়েছিল এবং তারা ছয়টি টাই ম্যাচের অভিজ্ঞতা অর্জন করেছিল।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”অস্ট্রেলিয়ার ওয়ানডে ইতিহাস” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

অস্ট্রেলিয়ার ওয়ানডে ইতিহাসে এখন পর্যন্ত ৯৭৯টি ম্যাচ রয়েছে। এর মধ্যে তারা ৫৯৪ টি প্রতিযোগিতায় জিতেছে, অন্যদিকে বিরোধী দলগুলি ৩৪২ টি ম্যাচে জয় লাভ করেছে। অস্ট্রেলিয়ার সাথে জড়িত 34 টি ম্যাচ ছিল যা সিদ্ধান্তহীন ছিল এবং তাদের নয়টি ম্যাচ কোনও ফলাফল ছাড়াই শেষ হয়েছিল।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম অস্ট্রেলিয়া ওয়ানডে ইতিহাস” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে ১০৩ টি ওয়ানডে ম্যাচের মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকা ৫১ টি ম্যাচ জিতেছে এবং অস্ট্রেলিয়া ৪৮ টি জিতেছে। উপরন্তু, তাদের তিনটি ম্যাচ টাই তে শেষ হয়েছিল, এবং একটি ম্যাচ কোনও ফলাফল ছাড়াই শেষ হয়েছিল।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”প্রিয় দল” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

আমাদের ম্যাচের ভবিষ্যদ্বাণী দৃঢ়ভাবে অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে কারণ দলটি সম্ভবত এই ম্যাচে জয় নিশ্চিত করবে। বেশ কয়েকটি কারণ প্রিয় হিসাবে অস্ট্রেলিয়ার অবস্থানে অবদান রাখে, যার মধ্যে রয়েছে:

  • টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়ে অস্ট্রেলিয়ার সাম্প্রতিক সাফল্য এই ম্যাচের আগে তাদের আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দিয়েছে।
  • অস্ট্রেলীয় দলে মূল খেলোয়াড়দের প্রত্যাবর্তন তাদের সামগ্রিক দলের শক্তি এবং পারফরম্যান্স ের সম্ভাবনা বাড়িয়ে তোলে।
  • টি-টোয়েন্টি সিরিজ থেকে একটি ভাল পারফর্মিং বোলিং ইউনিট, উল্লেখযোগ্য প্রভাব ফেলার ক্ষমতা প্রদর্শন করে।
  • এই ওয়ানডে সিরিজের জন্য বিশেষভাবে গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়দের ফিরে আসার সাথে সাথে দক্ষিণ আফ্রিকার পুনরুত্থান তাদের আরও শক্তিশালী প্রতিপক্ষ করে তুলেছে।
  • অস্ট্রেলিয়া এবং দক্ষিণ আফ্রিকা উভয়ই সামগ্রিক দলের শক্তির দিক থেকে ঘনিষ্ঠভাবে মিলে যায়, যা একটি প্রতিযোগিতামূলক এবং উত্তেজনাপূর্ণ প্রতিযোগিতার মঞ্চ তৈরি করে।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”জয়ের সুযোগ” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

অস্ট্রেলিয়া তাদের শক্তিশালী ব্যাটিং অর্ডার এবং বোলিং ইউনিটের দিক থেকে দক্ষিণ আফ্রিকার চেয়ে উল্লেখযোগ্য সুবিধা রাখে, যা আজকের ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার জয়ের সম্ভাবনা বাড়িয়ে দিয়েছে। উভয় দলের জয়ের সম্ভাবনা নিম্নরূপ:

অস্ট্রেলিয়া: এই ম্যাচ জেতার সম্ভাবনা ৬০ শতাংশ
দক্ষিণ আফ্রিকা: এই ম্যাচ জেতার সম্ভাবনা ৪০ শতাংশ

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”টস ভবিষ্যদ্বাণী” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

কয়েন টসের ফলাফল এই সিরিজের প্রতিটি ম্যাচে নেওয়া সিদ্ধান্তগুলিতে গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব ফেলতে চলেছে। টসের ভবিষ্যদ্বাণীর উপর ভিত্তি করে টসে জয়ী দল প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”পিচ রিপোর্ট” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম অস্ট্রেলিয়া প্রথম ওয়ানডে ম্যাচটি হবে ব্লোমফন্টেইনের মাঙ্গাউং ওভালে। এই ভেন্যুর পিচ ব্যাটিংয়ের জন্য অত্যন্ত অনুকূল, সংক্ষিপ্ত বাউন্ডারি যা স্পিনারদের পক্ষেও হতে পারে। পুরো ম্যাচ জুড়েই পিচ ব্যাটিংয়ের উপযোগী থাকবে বলে আশা করা হচ্ছে। ২৯০ রানের লক্ষ্য দ্বিতীয় ইনিংসে তাড়া করা দলের জন্য চ্যালেঞ্জিং প্রমাণিত হতে পারে।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”আবহাওয়া প্রতিবেদন” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

ম্যাচের দিনের জন্য ব্লোমফন্টেইনের আবহাওয়ার দৃষ্টিভঙ্গি ক্রিকেট খেলার জন্য প্রতিকূল। বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে, এবং এটি কল্পনাকরা যায় যে আমরা ম্যাচ চলাকালীন বাধার মুখোমুখি হতে পারি।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম অস্ট্রেলিয়া সম্ভাব্য একাদশ” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

দক্ষিণ আফ্রিকা একাদশ: টেম্বা বাভুমা (অধিনায়ক), কুইন্টন ডি কক, রাসি ভ্যান ডার ডুসেন, এইডেন মার্করাম, হেনরিখ ক্লাসেন, ডেভিড মিলার, মার্কো জ্যানসেন, জেরাল্ড কোয়েটজি, কেশব মহারাজ, কাগিসো রাবাদা, লুঙ্গি এনগিডি।

অস্ট্রেলিয়া একাদশ: ডেভিড ওয়ার্নার, ট্রাভিস হেড, মিচেল মার্শ (অধিনায়ক), ক্যামেরন গ্রিন, জশ ইংলিস, অ্যালেক্স ক্যারি, মার্কাস স্টয়নিস, শন অ্যাবট, অ্যাশটন অ্যাগার, অ্যাডাম জাম্পা, জশ হ্যাজেলউড।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”এসএ বনাম এইউএস ড্রিম ১১ ফ্যান্টাসি টিপস” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

অধিনায়ক: এম মার্শ
সহ-অধিনায়ক: এ মার্করাম
কুইন্টন ডি কক, হেনরিচ ক্লাসেন, ডেভিড ওয়ার্নার, আর হেনড্রিকস, এম স্টয়নিস, ট্রাভিস হেড, ক্রিস গ্রিন, প্যাট কামিন্স, কাগিসো রাবাদা।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”ম্যাচের তারিখ ও সময়” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

তারিখ: বৃহস্পতিবার, ৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩
সময়: সকাল ১১:০০ জিএমটি / ০১:০০ পিএম স্থানীয় / ০৪:৩০ অপরাহ্ন

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”স্থানের বিবরণ” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

স্টেডিয়াম: মাঙ্গাং ওভাল
অবস্থান: ব্লুমফন্টেইন, দক্ষিণ আফ্রিকা
ক্যাপাসিটি: ২০০০০
হিসাবে পরিচিত: শেভরলেট পার্ক, আউটসুরেন্স ওভাল, গুডইয়ার পার্ক, স্প্রিংবক পার্ক
সমাপ্তি: লচ লোগান এন্ড, উইলোস এন্ড
টাইম জোন: ইউটিসি +০২:০০
হোম: ফ্রি স্টেট, অরেঞ্জ ফ্রি স্টেট
ফ্লাডলাইট: হ্যাঁ

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”ওয়ানডেতে ভেন্যু স্কোরিং প্যাটার্ন” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

সর্বমোট ম্যাচ: ৩৩
প্রথমে ব্যাট করে ম্যাচ জয়ী: ১৪
ম্যাচ জয়ী প্রথম বোলিং: ১৭
গড় ১ম ইন স্কোর: ২৪৪
গড় ২য় ইনস স্কোর: ২০২
সর্বাধিক রেকর্ড করা হয়েছে: ৩৯৯/৯ (৫০ ওভার) দ্বারা ইংলেন্ড বনাম সাউথ আফ্রিকা
সর্বনিম্ন রেকর্ড করা মোট: ৭৮/১০ (২৪ ওভার) জিমবাবু বনাম সাউথ আফ্রিকা
সর্বোচ্চ স্কোর: ৩৪৭/৫ (৪৯.১ ওভার) সাউথ আফ্রিকা বনাম ইংল্যান্ড
সর্বনিম্ন স্কোর রক্ষা করা হয়েছে: ২০৩/৬ (৫০ওভার) অস্ট্রেলিয়া বনাম সাউথ আফ্রিকা

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”দক্ষিণ আফ্রিকা ওয়ানডে স্কোয়াড” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

টেম্বা বাভুমা (অধিনায়ক), কুইন্টন ডি কক (উইকেটরক্ষক), রাসি ভ্যান ডার ডুসেন, এইডেন মার্করাম, হেনরিখ ক্লাসেন, ডেভিড মিলার, মার্কো জানসেন, জেরাল্ড কোয়েটজি, কেশব মহারাজ, কাগিসো রাবাদা, লুঙ্গি এনগিডি, দেওয়াল্ড ব্রেভিস, বিয়োর্ন ফোরটুইন, রিজা হেনড্রিকস, সিসান্দা মাগালা, এনরিচ নর্টজে, তাবরাইজ শামসি, ওয়েন পার্নেল, ত্রিস্তান স্টাবস।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”অস্ট্রেলিয়ার ওয়ানডে স্কোয়াড” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

মিচেল মার্শ (অধিনায়ক), ক্যামেরন গ্রিন, জশ ইংলিস, অ্যালেক্স ক্যারি (উইকেটরক্ষক), ডেভিড ওয়ার্নার, ট্রাভিস হেড, মার্কাস স্টয়নিস, শন অ্যাবট, অ্যাস্টন অ্যাগার, জশ হ্যাজেলউড, অ্যাডাম জাম্পা, মার্নাস লাবুশেন, স্পেন্সার জনসন, টিম ডেভিড, অ্যারন হার্ডি, তানভীর সাঙ্গা, নাথান এলিস।

[/fusion_content_box][/fusion_content_boxes][/fusion_builder_column][/fusion_builder_row][/fusion_builder_container]