[fusion_builder_container type=”flex” hundred_percent=”no” hundred_percent_height=”no” min_height_medium=”” min_height_small=”” min_height=”” hundred_percent_height_scroll=”no” align_content=”stretch” flex_align_items=”flex-start” flex_justify_content=”flex-start” flex_column_spacing=”” hundred_percent_height_center_content=”yes” equal_height_columns=”no” container_tag=”div” menu_anchor=”” hide_on_mobile=”small-visibility,medium-visibility,large-visibility” status=”published” publish_date=”” class=”” id=”” spacing_medium=”” margin_top_medium=”” margin_bottom_medium=”” spacing_small=”” margin_top_small=”” margin_bottom_small=”” margin_top=”” margin_bottom=”” padding_dimensions_medium=”” padding_top_medium=”” padding_right_medium=”” padding_bottom_medium=”” padding_left_medium=”” padding_dimensions_small=”” padding_top_small=”” padding_right_small=”” padding_bottom_small=”” padding_left_small=”” padding_top=”” padding_right=”” padding_bottom=”” padding_left=”” link_color=”” link_hover_color=”” border_sizes=”” border_sizes_top=”” border_sizes_right=”” border_sizes_bottom=”” border_sizes_left=”” border_color=”” border_style=”solid” box_shadow=”no” box_shadow_vertical=”” box_shadow_horizontal=”” box_shadow_blur=”0″ box_shadow_spread=”0″ box_shadow_color=”” box_shadow_style=”” z_index=”” overflow=”” gradient_start_color=”” gradient_end_color=”” gradient_start_position=”0″ gradient_end_position=”100″ gradient_type=”linear” radial_direction=”center center” linear_angle=”180″ background_color=”” background_image=”” skip_lazy_load=”” background_position=”center center” background_repeat=”no-repeat” fade=”no” background_parallax=”none” enable_mobile=”no” parallax_speed=”0.3″ background_blend_mode=”none” video_mp4=”” video_webm=”” video_ogv=”” video_url=”” video_aspect_ratio=”16:9″ video_loop=”yes” video_mute=”yes” video_preview_image=”” render_logics=”” absolute=”off” absolute_devices=”small,medium,large” sticky=”off” sticky_devices=”small-visibility,medium-visibility,large-visibility” sticky_background_color=”” sticky_height=”” sticky_offset=”” sticky_transition_offset=”0″ scroll_offset=”0″ animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=”” filter_hue=”0″ filter_saturation=”100″ filter_brightness=”100″ filter_contrast=”100″ filter_invert=”0″ filter_sepia=”0″ filter_opacity=”100″ filter_blur=”0″ filter_hue_hover=”0″ filter_saturation_hover=”100″ filter_brightness_hover=”100″ filter_contrast_hover=”100″ filter_invert_hover=”0″ filter_sepia_hover=”0″ filter_opacity_hover=”100″ filter_blur_hover=”0″][fusion_builder_row][fusion_builder_column type=”1_1″ layout=”1_1″ align_self=”auto” content_layout=”column” align_content=”flex-start” valign_content=”flex-start” content_wrap=”wrap” spacing=”” center_content=”no” link=”” target=”_self” link_description=”” min_height=”” hide_on_mobile=”small-visibility,medium-visibility,large-visibility” sticky_display=”normal,sticky” class=”” id=”” type_medium=”” type_small=”” order_medium=”0″ order_small=”0″ dimension_spacing_medium=”” dimension_spacing_small=”” dimension_spacing=”” dimension_margin_medium=”” dimension_margin_small=”” margin_top=”” margin_bottom=”” padding_medium=”” padding_small=”” padding_top=”” padding_right=”” padding_bottom=”” padding_left=”” hover_type=”none” border_sizes=”” border_color=”” border_style=”solid” border_radius=”” box_shadow=”no” dimension_box_shadow=”” box_shadow_blur=”0″ box_shadow_spread=”0″ box_shadow_color=”” box_shadow_style=”” overflow=”” background_type=”single” gradient_start_color=”” gradient_end_color=”” gradient_start_position=”0″ gradient_end_position=”100″ gradient_type=”linear” radial_direction=”center center” linear_angle=”180″ background_color=”” background_image=”” background_image_id=”” background_position=”left top” background_repeat=”no-repeat” background_blend_mode=”none” render_logics=”” filter_type=”regular” filter_hue=”0″ filter_saturation=”100″ filter_brightness=”100″ filter_contrast=”100″ filter_invert=”0″ filter_sepia=”0″ filter_opacity=”100″ filter_blur=”0″ filter_hue_hover=”0″ filter_saturation_hover=”100″ filter_brightness_hover=”100″ filter_contrast_hover=”100″ filter_invert_hover=”0″ filter_sepia_hover=”0″ filter_opacity_hover=”100″ filter_blur_hover=”0″ animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=”” last=”true” border_position=”all” first=”true”][fusion_content_boxes layout=”icon-with-title” columns=”1″ link_type=”” button_span=”” link_area=”” link_target=”” icon_align=”left” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_delay=”” animation_offset=”” hide_on_mobile=”small-visibility,medium-visibility,large-visibility” class=”” id=”” title_size=”” heading_size=”2″ title_color=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” body_color=”” backgroundcolor=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”no” iconcolor=”” icon_circle=”” icon_circle_radius=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” icon_size=”” icon_hover_type=”” hover_accent_color=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” margin_top=”” margin_bottom=””][fusion_content_box title=”ম্যাচের বিবরণ” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

২০২৩ এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে ৩০ আগস্ট, ২০২৩ বুধবার। মুলতানের মুলতান ক্রিকেট স্টেডিয়ামে পাকিস্তান ও নেপালের মধ্যকার ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”ম্যাচের সংক্ষিপ্ত বিবরণ” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

২০২৩ সালের এশিয়া কাপ শুরু হওয়ার আগে বিসিসিআই এবং পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের মধ্যে একাধিক আলোচনা হয়েছে। ১৬তম বারের মতো এশিয়া কাপের এবারের আসরে ওয়ানডে ফরম্যাট চালু করা হয়েছে। টুর্নামেন্টে ছয়টি দল অংশগ্রহণ করে, দুটি স্বতন্ত্র গ্রুপে বিভক্ত। ‘এ’ গ্রুপে রয়েছে বাংলাদেশ, আফগানিস্তান ও বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা এবং ‘বি’ গ্রুপে রয়েছে নেপাল, পাকিস্তান ও ভারত। উল্লেখ্য, এশিয়া কাপের এই বিশেষ সংস্করণটি পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা যৌথভাবে আয়োজন করবে, কারণ ভারত পূর্বউদ্বেগের কারণে পাকিস্তানে খেলতে অস্বীকার করেছিল।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”পাকিস্তান পর্যালোচনা” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

পাকিস্তান দুইবার এশিয়া কাপ শিরোপা জিতেছে এবং আগের মৌসুমসহ তিনবার রানার্সআপ হয়েছে। তাদের সর্বশেষ জয় ছিল ২০১২ সালে, যখন তারা বাংলাদেশকে পরাজিত করে শিরোপা জিতেছিল। আইসিসি র ্যাঙ্কিংয়ে ওয়ানডে র ্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে থাকা পাকিস্তান এশিয়া কাপের এবারের আসরে শক্তিশালী প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে দাঁড়িয়েছে। ওয়ানডে ক্রিকেটে পাকিস্তানের জন্য বছরটি বিশেষভাবে অনুকূল ছিল, খেলা দশটি ম্যাচের মধ্যে সাতটি জয়ের প্রশংসনীয় রেকর্ড রয়েছে।

বাবর আজমের নেতৃত্বে পাকিস্তান উন্নতি করেছে, উল্লেখযোগ্য সংখ্যক জয় পেয়েছে। টপ এবং মিডল ব্যাটিং অর্ডারটি দক্ষ ব্যাটসম্যানদের দ্বারা ভালভাবে পরিচালিত হয়। ইমাম উল হক, মোহাম্মদ রিজওয়ান এবং ফখর জামানের পাশাপাশি বাবর আজম টপ অর্ডারের নেতৃত্ব দেন এবং মিডল অর্ডার মোহাম্মদ নওয়াজ, শাদাব খান এবং ইফতিখার আহমেদের মতো সাদা বলের ক্রিকেটের সেরা অলরাউন্ডারদের দক্ষতা থেকে উপকৃত হয়। আফগানিস্তানের বিপক্ষে সাম্প্রতিক ওয়ানডে সিরিজে বাবর আজম এবং ইমাম উল হকের ব্যতিক্রমী পারফরম্যান্স পাকিস্তানের জন্য তাদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকাকে তুলে ধরেছে।

হারিস রউফ ও নাসিম শাহকে সমর্থন করে শাহীন আফ্রিদির নেতৃত্বে পাকিস্তানের একটি শক্তিশালী বোলিং ইউনিট রয়েছে। উসামা মীরের খেলার সময় সীমিত হওয়ায় বিশেষজ্ঞ স্পিনারের অনুপস্থিতি একটি উল্লেখযোগ্য ব্যবধান রয়ে গেছে। তাই স্পিন বোলার হিসেবে শাদাব খান ও মোহাম্মদ নওয়াজের অবদান পাকিস্তানের বোলিং কৌশলে আরও তাৎপর্যপূর্ণ হয়ে ওঠে।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”নেপাল পর্যালোচনা” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

নেপাল তাদের ক্রিকেট ইতিহাসে প্রথমবারের মতো এশিয়া কাপে প্রবেশ করেছে, যা একটি গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক। এসিসি পুরুষ প্রিমিয়ার কাপ ২০২৩-এ তাদের ব্যতিক্রমী পারফরম্যান্স লক্ষণীয়। গ্রুপ লিডার হিসেবে উঠে তারা সেমিফাইনালে কুয়েতকে পরাজিত করে এবং ফাইনালে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে পরাজিত করে। তবে ২০২৩ সালের এশিয়া কাপের গ্রুপ পর্বে পাকিস্তান ও ভারতের মতো ক্রিকেট পরাশক্তির মুখোমুখি হওয়ার জন্য নেপালের আসল পরীক্ষা অপেক্ষা করছে। গত কয়েক বছরে নেপাল যথেষ্ট পরিমাণে ক্রিকেট খেলেছে এবং অসংখ্য ম্যাচে প্রশংসনীয় দক্ষতা প্রদর্শন করেছে। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে তাদের অসাধারণ পারফরম্যান্স ছিল বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য।

জিম্বাবুয়েতে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের মতো শক্তিশালী প্রতিপক্ষকে পরাজিত করে নেপাল তার দক্ষতা প্রদর্শন করেছিল। আয়ারল্যান্ডের মতো শক্তিশালী দলের বিপক্ষেও তারা প্রশংসনীয় পারফরম্যান্স করেছে। আসন্ন টুর্নামেন্টে পাকিস্তান ও ভারতের বিপক্ষে নেপালের পারফরমেন্স নিয়ে প্রত্যাশা অনেক বেশি। যদিও জ্ঞানেন্দ্র মল্লা সাম্প্রতিক বছরগুলিতে নেপালের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ব ছিলেন, তবে তার অবসর ব্যাটিং লাইনআপে একটি উল্লেখযোগ্য শূন্যতা তৈরি করেছে। প্রতীস জিসি এবং ভীম শার্কির মতো তরুণ প্রতিভারা ব্যাটিং স্কোয়াডের অংশ হলেও জ্ঞানেন্দ্র মল্লা যে অভিজ্ঞতা নিয়ে এসেছেন তা প্রতিস্থাপন ের জন্য তাদের চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হবে।

নেপালের পক্ষে ব্যাটিং য়ের দায়িত্বে রয়েছেন কুশল ভুর্তেল, দীপেন্দ্র সিং, আসিফ শেখ, রোহিত পাউডেল ও আরিফ শেখ। করণ কেসি, মৌসুম ডাকাল এবং কিশোর মাহাতোর সহায়তায় সন্দীপ লামিচানে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”প্রিয় দল” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

পাকিস্তান ওয়ানডে ক্রিকেটে একটি শক্তিশালী এবং অভিজ্ঞ শক্তি হিসাবে দাঁড়িয়েছে, সন্দেহের কোনও অবকাশ নেই যে, অন্তত কাগজে-কলমে, তারা নেপালের চেয়ে সামগ্রিকভাবে এগিয়ে রয়েছে। এশিয়া কাপের জন্য আমাদের অনুমান অনুযায়ী, উদ্বোধনী ম্যাচে জয়ের জন্য ফেভারিট দাবিদার হিসাবে আবির্ভূত হয়েছে পাকিস্তান। বেশ কয়েকটি কারণ এই ম্যাচের জন্য এগিয়ে থাকা হিসাবে পাকিস্তানের অবস্থানে অবদান রাখে, মূল বিবেচনাগুলি নীচে উল্লিখিত হয়েছে:
১. আইসিসি র ্যাঙ্কিংয়ে বর্তমানে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে পাকিস্তান।
২. সাম্প্রতিক এক সিরিজে আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ জিতেছে পাকিস্তান।
৩. পাকিস্তানের বোলিং ইউনিট শক্তি ও অভিজ্ঞতা উভয় দিক থেকেই নেপালকে ছাড়িয়ে গেছে।

৪. পাকিস্তানের বোলিং দল শুধু শক্তিই নয়, যথেষ্ট দক্ষতাও রয়েছে।
৫. খেলার সব দিক জুড়ে, পাকিস্তান তাদের সামগ্রিক আধিপত্যকে তুলে ধরে নেপালের চেয়ে একটি স্বতন্ত্র সুবিধা রাখে।

এই কারণগুলির আলোকে, পাকিস্তান কার্যত প্রতিটি দিক থেকে শক্তিশালী প্রতিদ্বন্দ্বী হিসাবে প্রস্তুত, উদ্বোধনী ম্যাচে সম্ভাব্য প্রভাবশালী পারফরম্যান্সের জন্য মঞ্চ তৈরি করে।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”জয়ের সুযোগ” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

পাকিস্তানের লাইনআপটি অভিজ্ঞ অভিজ্ঞ এবং ওয়ানডে ফরম্যাটে প্রতিশ্রুতিশীল তরুণ প্রতিভার মিশ্রণ। দলের ব্যাটিং অর্ডারে যথেষ্ট শক্তি রয়েছে, যার মধ্যে বিখ্যাত ওয়ানডে হিটাররাও রয়েছেন, যা আজকের ম্যাচে তাদের জয়ের সম্ভাবনাকে আরও বাড়িয়ে তুলেছে। আজকের ক্রিকেট ম্যাচের ফলাফলের পূর্বাভাস নীচে দেওয়া হল:

প্রথম টেস্টে জয়ের ৮০ শতাংশ সম্ভাবনা রয়েছে পাকিস্তানের।
অন্যদিকে নেপালের প্রথম টেস্টে জয়ের সম্ভাবনা ২০ শতাংশ।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”টস ভবিষ্যদ্বাণী” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

২০২৩ সালের এশিয়া কাপের সব ম্যাচের অ্যাকশন নির্ধারণে টসের ফলাফল গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। স্কোরবোর্ডে একটি শক্ত স্কোর স্থাপন করা এই উচ্চ-স্টেক লড়াইয়ে সুবিধাজনক প্রমাণিত হয়। টসের ভবিষ্যদ্বাণী অনুযায়ী, টসে জয়ী দল প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিতে পারে।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”পিচ রিপোর্ট” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

২০২৩ সালের এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে মুলতানের মুলতান ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। এই ভেন্যুর পিচটি যথেষ্ট গতি এবং বাউন্স সহ একটি সমতল ব্যাটিং ট্র্যাক উপস্থাপন করে। পূর্ববর্তী ট্র্যাকগুলির তুলনায়, এই পিচটি ধীর প্রকৃতি প্রদর্শন করে, স্পিন বোলারদের জন্য অনুকূল পরিস্থিতি সরবরাহ করে। ধারণা করা হচ্ছে, ম্যাচ এগিয়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ধীরে ধীরে মাঠের গতি কমে যাবে, যা এই প্রাথমিক ম্যাচে ব্যাটিংকে আরও চ্যালেঞ্জিং করে তুলবে। ২৭০ থেকে ২৮০ রানের স্কোর অর্জন যে কোনও তাড়া দলের জন্য একটি কঠিন চ্যালেঞ্জ হিসাবে প্রমাণিত হতে পারে।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”আবহাওয়া প্রতিবেদন” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

মুলতানের আবহাওয়ার দৃষ্টিভঙ্গি উচ্চ তাপমাত্রা নির্দেশ করে যা নিঃসন্দেহে খেলোয়াড়দের শারীরিক সহনশীলতা পরীক্ষা করবে। ম্যাচের দিন বিক্ষিপ্ত মেঘের উপস্থিতির পূর্বাভাস দেওয়া হলেও আবহাওয়ার প্রতিবেদন অনুযায়ী বৃষ্টির পূর্বাভাস দেওয়া হয়নি। এটি একটি নিরবচ্ছিন্ন এবং সম্পূর্ণ প্রথম ম্যাচের সম্ভাবনার জন্য ভাল ইঙ্গিত দেয়।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”পাকিস্তান বনাম এনইপি সম্ভাব্য একাদশ” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

পাকিস্তান একাদশ: বাবর আজম (অধিনায়ক), মোহাম্মদ রিজওয়ান (উইকেটরক্ষক), ফখর জামান, ইফতিখার আহমেদ, খুশদিল শাহ, ফাহিম আশরাফ, মোহাম্মদ নওয়াজ, শাদাব খান, হারিস রউফ, শাহিন আফ্রিদি, নাসিম শাহ।

নেপাল: রোহিত পাউডেল (অধিনায়ক), আসিফ শেখ (উইকেটরক্ষক)। অর্জুন সৌদ, দীপেন্দ্র সিং আইরি, কুশল ভুর্তেল, মৌসুম ঢাকাল, প্রতিস জিসি, গুলসান ঝা, করণ কেসি, সন্দীপ জোরা।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”ম্যাচের তারিখ ও সময়” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

তারিখ: বুধবার, ৩০ আগস্ট ২০২৩
সময়: ০৯:৩০ পূর্বাহ্ন জিএমটি / ০২:৩০ অপরাহ্ণ স্থানীয় / ০৩:০০ অপরাহ্ন আই এস টি

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”স্থানের বিবরণ” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

স্টেডিয়াম: মুলতান ক্রিকেট স্টেডিয়াম
অবস্থান: মুলতান, পাকিস্তান
ক্যাপাসিটি: ৩০০০০
শেষ: মূল প্যাভিলিয়ন শেষ, উত্তর প্যাভিলিয়ন শেষ
টাইম জোন: ইউটিসি +০৫:০০
হোম: মুলতান সুলতানস
ফ্লাডলাইট: হ্যাঁ

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”ওয়ানডেতে ভেন্যু স্কোরিং প্যাটার্ন” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

সর্বমোট ম্যাচ: ১০
প্রথমে ব্যাট করে ম্যাচ জয়ী: ৫
ম্যাচ জয়ী প্রথম বোলিং: ৫
গড় ১ম ইন স্কোর: ২৫৪
গড় ২য় ইনস স্কোর: ২০৬
সর্বাধিক রেকর্ড করা মোট: ৩২৩/৩ (৫০ ওভি) দ্বারা পাকিস্তান বনাম বান
সর্বনিম্ন রেকর্ড করা হয়েছে: ১৪৮/১০ (৩৮.৩ ওভি) দ্বারা জিমবাবু বনাম পাকিস্তান
সর্বোচ্চ রান তাড়া: ৩০৬/৫ (৪৯.২ ওভার) পাকিস্তান বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
সর্বনিম্ন স্কোর রক্ষা করা হয়েছে: ২৭২/৯ (৫০ ওভি) দ্বারা পাকিস্তান বনাম জিআইএম

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”পাকিস্তান স্কোয়াড” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

বাবর আজম (অধিনায়ক), হাদাব খান, মোহাম্মদ নওয়াজ, উসামা মীর, ফাহিম আশরাফ, হারিস রউফ, আবদুল্লাহ শফিক, ফখর জামান, ইমাম-উল-হক, সালমান আলী আগা, ইফতিখার আহমেদ, মোহাম্মদ রিজওয়ান, মোহাম্মদ হারিস, মোহাম্মদ ওয়াসিম জুনিয়র, নাসিম শাহ, শাহিন আফ্রিদি, সৌদ শাকিল ও তৈয়ব তাহির।

[/fusion_content_box][fusion_content_box title=”নেপাল স্কোয়াড” backgroundcolor=”” hue=”” saturation=”” lightness=”” alpha=”” icon=”” iconflip=”” iconrotate=”” iconspin=”” iconcolor=”” circlecolor=”” circlebordersize=”” circlebordercolor=”” outercirclebordersize=”” outercirclebordercolor=”” image=”” image_id=”” image_max_width=”” link=”” linktext=”Read More” link_target=”” animation_type=”” animation_direction=”left” animation_speed=”0.3″ animation_offset=””]

রোহিত পাউডেল (অধিনায়ক), আসিফ শেখ (উইকেটরক্ষক)। অর্জুন সৌদ, দীপেন্দ্র সিং আইরি, কুশল ভুর্তেল, মৌসুম ঢাকাল, প্রতিস জিসি, গুলসান ঝা, করণ কেসি, সন্দীপ জোরা, সোমপাল কামি, সন্দীপ লামিচানে, কিশোর মাহাতো, কুশল মল্লা, ললিত রাজবংশী, আরিফ শেখ, ভীম শার্কি।

[/fusion_content_box][/fusion_content_boxes][/fusion_builder_column][/fusion_builder_row][/fusion_builder_container]