ম্যাচের চতুর্থ দিনে শ্রীলঙ্কার ব্যাটসম্যানরা পাকিস্তানের বিপক্ষে যথেষ্ট লিড গড়ার আশা করছিল, কিন্তু পাকিস্তান দলের ব্যতিক্রমী ফিল্ডিং দক্ষতায় তারা ধরা পড়ে যায়।

দিনের বেলায় তিনটি চমকপ্রদ ক্যাচ নেওয়া হয়েছিল, যার ফলে শ্রীলঙ্কা ছয় উইকেট হারিয়ে ১৮৫ রানে সীমাবদ্ধ ছিল। ১০৯ বলে ৬৪ রান করা অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসকে আউট করার জন্য অধিনায়ক বাবর আজম প্রথম স্লিপে একটি তীক্ষ্ণ ক্যাচ নিয়েছিলেন।

দ্বিতীয় চিত্তাকর্ষক ক্যাচটি কার্যকর করেন ইমাম-উল-হক, যিনি ২৮ রানে দীনেশ চান্দিমালকে আউট করে মিডউইকেটে একটি কম ক্যাচ ধরতে এগিয়ে যান।

তৃতীয় ক্যাচটি ছিল আবদুল্লাহ শফিকের শর্ট লেগে মাস্টারপিস, সাদিরা সামারাবিক্রমাকে মাত্র ১১ রানে আউট করেন। শফিক ব্যতিক্রমী রিফ্লেক্স দেখিয়ে দ্রুত বাম দিকে এগিয়ে যান এবং ডান হাত দিয়ে ক্যাচ নেওয়ার জন্য তার ওজন ডানদিকে সরিয়ে নেন।

পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার মধ্যে চলমান সিরিজটি উভয় দলের জন্য বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ (ডাব্লুটিসি) চক্রের একটি অংশ। শ্রীলঙ্কা তাদের প্রথম ইনিংসে ৩১২ রান করেছিল, অন্যদিকে পাকিস্তান কঠিন পরিস্থিতি থেকে সেরে উঠে তাদের প্রথম ইনিংসে ৪৬১ রান করেছিল।