আজম খানকে আসন্ন সংযুক্ত আরব আমিরা্তে ভিত্তিক আন্তর্জাতিক লীগ টি-২০ (আইএলটি২০) এর জন্য এনওসি অস্বীকার করে, যেমনটি ক্রিকবাজের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয় যে লীগের আয়োজকদের পাশাপাশি পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডও এই বিষয়টি নিশ্চিত করে। বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন টি-টোয়েন্টি ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগের অংশ হওয়া আজমের ছয় দলের টুর্নামেন্টে ডেজার্ট ভাইপার্সের হয়ে খেলার কথা ছিল। “আইএলটি২০-এর একটি সূত্র জানআয়, আমরা পিসিবির কাছ থেকে চিঠি পেয়েছি যে পাকিস্তানের খেলোয়াড়দের এনওসি দেওয়া হচ্ছে না। ” সূত্রটি মাধমে জানা যায় ,এটা মালিকদের উপর নির্ভর করে যে পাকিস্তানের খেলোয়াড়দের নেওয়া হবে কি না এবং কমপক্ষে একজন মালিক, ল্যান্সার ক্যাপিটাল, আগ্রহী ছিল । এর আগে জানানো হয় যে আইএলটি ২০ এবং সিএসএ-র লীগে পাকিস্তানের খেলোয়াড়দের স্বাগত জানানো হবে না এবং বেশিরভাগ ফ্র্যাঞ্চাইজি ভারতীয় বিনিয়োগকারীদের মালিকানাধীন।

দুটি টুর্নামেন্টের ১২ জন মালিকের মধ্যে ১১ জনই ভারতীয় এবং দুই দেশের মধ্যে কূটনৈতিক বৈরিতার কারণে ভারতের মালিকরা পাকিস্তানের খেলোয়াড়দের পক্ষে নন। পাকিস্তান, সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং ইংল্যান্ডের অসংখ্য পাকিস্তানি খেলোয়াড়ের এজেন্টরা অতিরিক্ত প্রচেষ্টা চালায় এবং দলগুলিকে তাদের দেশের সর্বোত্তম সম্ভাবনার সাথে সরবরাহ করার প্রতিশ্রুতি দেয়।