একটি নতুন চেহারার ইংল্যান্ড দল মঙ্গলবার করাচিতে প্রথম টুয়েন্টি২০আন্তর্জাতিকে ছয় উইকেটে নিয়ে যায়, ১৭ বছর পর একটি স্মরণীয় উপায়ে পাকিস্তানকে পরাজিত করে। ওপেনার অ্যালেক্স হেলস ৪০ বলে ৫৩ রান করেন,যা ব্যর্থ বিনোদনমূলক ড্রাগ টেস্টে তিন বছরের অনুপস্থিতির পর তার প্রথম আন্তর্জাতিক ১৯.২ ওভারে ইংল্যান্ডের ১৫৯ রানের করে।পাকিস্তানের ওপেনার মোহাম্মদ রিজওয়ান ৪৬ বলে ৬৮ রান করে পাকিস্তানকে তাদের ২০ ওভারে ১৫৮-৭ করতে সহায়তা করে। পরে ইংল্যান্ড তাদের জাতীয় স্টেডিয়ামে ব্যাট করে এবং জয়ের ফলে সাত ম্যাচের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় ইংল্যান্ড। পাকিস্তানের খেলোয়াড়রা এই খেলায় একটি বিশেষ কিট পরিধান করে, যেখানে তাদের নাম ও সংখ্যা পানিতে নিমজ্জিত দেখানো হয়। খেলোয়াড়রা রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে কালো আর্মব্যান্ড পরেন, যিনি এই মাসের শুরুতে মারা যান। ইনজুরির কারণে জনি বেয়ারস্টোকে বাদ দেওয়ার পর হেলসকে ফিরিয়ে আনা হয়, তিনি সাতটি বাউন্ডারি মারেন এবং হ্যারি ব্রুকের সাথে চতুর্থ উইকেটে ৫৫ রান করে, যিনি অপরাজিত ৪২ রান করে।

এই বছরের পাকিস্তান সুপার লীগে অংশ নেওয়া ইংল্যান্ডের সাত জন খেলোয়াড়ের মধ্যে একজন হ্যারি ব্রুক, ২৫ বলের একটি শক্তিশালী ইনিংসে সাতটি বাউন্ডারি মারে তিনি । বেন ডাকেট (২১), দাভিদ মালান (২০) এবং ফিল সল্ট (১০) ইংল্যান্ডের অন্যান্য অবদানকারী ছিলো।পাকিস্তানের ইনিংস ফের একবার রিজওয়ানের দখলে।চলতি মাসের শুরুর দিকে এশিয়া কাপে ২৮১ রান করে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক রিজওয়ান ৬টি বাউন্ডারি ও ২টি ছক্কা হাঁকিয়ে অধিনায়ক বাবর আজমের (৩১) সঙ্গে প্রথম উইকেটে ৮৫ রানের জুটি গড়ে। ইফতিখার আহমেদ তার ১৭ বলে ২৮ রানের ইনিংসে তিনটি ছক্কা হাঁকালেও পাকিস্তান শেষ ১০ ওভারে মাত্র ৭১ রান তুলতে সক্ষম হয় এবং ছয় উইকেট হারায়।অভিষেককারী শান মাসুদ মাত্র সাত রান করে ব্যর্থ হন এবং হায়দার আলি এগারো রান করে। ইংল্যান্ডের নবাগত পেসার লুক উড ৩-২৪ এবং স্পিনার আদিল রশিদ ২-২৭ নিয়ে শেষ করে।বাকি ম্যাচগুলো হবে করাচি (২২, ২৩, ২৫ সেপ্টেম্বর) এবং লাহোরে (২৮, ৩০ সেপ্টেম্বর ও ২ অক্টোবর)।