ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) ২০২৩-এর প্রথম ম্যাচে লখনউ সুপার জায়ান্টসের বিপক্ষে গুজরাট টাইটান্সের মুখোমুখি হওয়ার পর ক্রুনাল পান্ডিয়া ও হার্দিক পান্ডিয়া ঐতিহাসিক বইয়ে নিজেদের নাম লিখিয়েছেন। হার্দিক গত বছর জিটিকে তাদের অভিষেক মরসুমে আইপিএল শিরোপা এনে দিয়েছিলেন, কেএল রাহুলের অনুপস্থিতিতে ক্রুনাল এলএসজি র অধিনায়কত্ব গ্রহণ করেছেন। এর আগে দুই ভাই একে অপরের মুখোমুখি হলেও এবারই প্রথম অধিনায়ক হিসেবে মুখোমুখি হতে যাচ্ছেন তারা।

লখনউ সুপার জায়ান্টসের (এলএসজি) অধিনায়ক ক্রুনাল পান্ডিয়া টস জিতে প্রথমে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন।

“আমরা প্রথমে বোলিং করব। এটি আমাদের জন্য স্বপ্ন সত্যি হওয়ার মতো, আমাদের নিজ নিজ দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার মতো। সামগ্রিকভাবে উইকেটও একই রকম খেলবে। আমাদের একটি ভাল ব্যাটিং দল রয়েছে, এবং আমরা আমাদের স্কোর তাড়া করার সুযোগটি উপভোগ করি। আমরা ভালো ক্রিকেট খেলেছি এবং পয়েন্ট টেবিলে ভালো অবস্থানে রয়েছি। লখনউ সুপার জায়ান্টসের অধিনায়ক ক্রুনাল পান্ডিয়া টসের সময় বলেছিলেন, “ডি কক দলে আছেন, নবীন মিস করছেন।

“আমরা ব্যাটিং করতাম। আমি যা চেয়েছিলাম তা পেয়েছি। এটি একটি আবেগময় দিন, আমাদের বাবা গর্বিত হতেন। এটি প্রথমবারের মতো ঘটছে, তাই আমাদের পরিবার গর্বিত। এটি নিজেকে প্রকাশ করার বিষয়ে এবং ফলাফল সম্পর্কে চিন্তা করার বিষয়ে নয়। ব্যর্থতার ভয় আসতে পারে, কিন্তু আমাদের ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে। গুজরাট টাইটান্সের অধিনায়ক হার্দিক পান্ডিয়া বলেন, ‘আয়ারল্যান্ডের হয়ে খেলতে হবে বলে লিটল আউট হয়ে গেছে।

লখনউ সুপার জায়ান্টস একাদশ: কুইন্টন ডি কক (উইকেটরক্ষক), কাইল মেয়ার্স, দীপক হুদা, করণ শর্মা, ক্রুনাল পান্ডিয়া (অধিনায়ক), মার্কাস স্টোইনিস, স্বপ্নিল সিং, যশ ঠাকুর, রবি বিষ্ণোই, মহসিন খান ও আভেশ খান।

এলএসজি ইমপ্যাক্ট সাব: আয়ুষ বাদোনি, অমিত মিশ্র, ড্যানিয়েল স্যামস, যুদ্ধবীর সিং এবং প্রেরাক মানকাড।

গুজরাট টাইটান্স একাদশ: ঋদ্ধিমান সাহা (উইকেটরক্ষক), শুভমান গিল, হার্দিক পান্ডিয়া (অধিনায়ক), বিজয় শঙ্কর, ডেভিড মিলার, অভিনব মনোহর, রাহুল তেওয়াটিয়া, রশিদ খান, মোহিত শর্মা, নূর আহমেদ ও মোহাম্মদ শামি।

জিটি ইমপ্যাক্ট সাব: আলজারি জোসেফ, দাসুন শানাকা, কেএস ভারত, শিবম মাভি এবং জয়ন্ত যাদব।