পাকিস্তানের তরুণ উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান আজম খান সম্প্রতি শারজায় আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে তার বাজে পারফরম্যান্স নিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েছেন।

সম্প্রতি একটি স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে আজম সেই সব সমালোচকদের উদ্দেশে বলেন, যারা তার ফিটনেসকে তার ফর্মের সঙ্গে তুলনা করেন এবং যারা সবসময় তার বিরুদ্ধে নেতিবাচকতা ছড়ায়।

“আমি সবার মুখ বন্ধ করতে পারি না, যদি ধ্বংসাত্মক সমালোচনা হয় তবে তা একপাশে রাখুন। কারণ যারা এ ধরনের কথা লেখেন তারা প্রায়শই অনেক নিকৃষ্ট এবং জীবনে খুব বেশি অগ্রগতি করেননি।

২৪ বছর বয়সী এই খেলোয়াড়ের মন্তব্যে নেতিবাচক সমালোচনার শিকার না হয়ে খেলোয়াড় হিসেবে নিজের উন্নতির দিকে মনোনিবেশ করার আত্মবিশ্বাস ও সংকল্প ের প্রতিফলন ঘটেছে।

তিনি বলেন, ‘যারা আমাকে পিন্ডি-পিচ ভিত্তিক ব্যাটসম্যান হিসেবে আখ্যায়িত করেন, তাদেরও আমার সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স পর্যবেক্ষণ করা উচিত। যদিও আমি তাদের মতামতকে সম্মান করি, আমি তাদের ভুল প্রমাণ করার জন্য ক্রিকেট খেলি না। বরং আমি নিজের সন্তুষ্টির জন্য ক্রিকেট খেলি এবং যতদিন সেই সন্তুষ্টি আমার মধ্যে থাকবে, ততদিন আমি খেলা চালিয়ে যাব।

এর আগে পাকিস্তানের সাবেক পেসার আকিব জাভেদ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পাকিস্তানের প্রতিনিধিত্বকারী খেলোয়াড়দের ফিটনেস স্তর নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন।

“আমি নিশ্চিত নই এটা কী ধরনের পরীক্ষা ছিল। এটা আমার কাছে পরিষ্কার যে এই সিরিজের জন্য স্কোয়াড নির্বাচন করার সময় পাকিস্তানের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য কী মানের দক্ষতা এবং ফিটনেস স্তর প্রয়োজন সে সম্পর্কে কোনও বিবেচনা করা হয়নি।