বুধবার গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানকে হারিয়ে ২-১ ব্যবধানে ঐতিহাসিক সিরিজ জয় পেয়েছে আয়ারল্যান্ডের নারী দল।

এটি এশিয়ার যে কোনও আইরিশ দলের জন্য প্রথম টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয় এবং দর্শকদের জন্য প্রথম অ্যাওয়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়।

গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর আয়ারল্যান্ড তাদের নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৬৭-৪ তোলে।

ওপেনার গাবি লুইস ৪৬ বলে ৭১ রান করে নেতৃত্ব দেওয়ার সাথে সাথে আয়ারল্যান্ডের টপ-অর্ডার দলের স্কোরে প্রচুর অবদান রাখে। তার চিত্তাকর্ষক ইনিংসের মধ্যে ১১ টি চার এবং একটি ছক্কা অন্তর্ভুক্ত ছিল।

লুইসের সহ-ওপেনার অ্যামি হান্টার ৩৫ বলে ৪০ রান করেন, অন্যদিকে অরলা প্রেন্ডারগাস্ট ২৩ বলে ৩৭ রান করেন।

পাকিস্তানের হয়ে নিদা দার, নাশরা সান্ধু ও গোলাম ফাতিমা একটি করে উইকেট পান।

কঠিন লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে পাকিস্তান ১৮.৫ ওভারে ১৩৩ রানে অলআউট হয়ে যায়।

ওপেনার জাভেরিয়া খান ৩৭ বলে ৭টি চারের সাহায্যে ৫০ রান করেন, কিন্তু তিনি অন্য প্রান্ত থেকে সমর্থন পাননি কারণ পাকিস্তান নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে।

আয়ারল্যান্ডের আরলিন কেলি এবং লরা ডেলানি তিনটি করে উইকেট নিয়ে রান তাড়া করার সময় পাকিস্তানকে আটকে রাখেন।

গ্যাবি লুইস প্লেয়ার অফ দ্য ম্যাচ ও সিরিজ খেলার পুরস্কার লাভ করেন। ১৩০.৯০ স্ট্রাইক রেটে ১৪৪ রান করে তিনটি টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ স্কোরার ছিলেন তিনি।

শনিবার লাহোরে সিরিজের প্রথম মহিলা টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে আয়ারল্যান্ড। এদিকে, সোমবার দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ৬ উইকেটে জিতে ফিরেছে পাকিস্তান।

উল্লেখ্য, টি-টোয়েন্টি সিরিজের আগে পাকিস্তান ওডিআই সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে ক্লিন সুইপ করেছিল।