ইংল্যান্ডের জেমস অ্যান্ডারসন বলেছেন, ‘কয়েক সপ্তাহের’ মধ্যে কোমরের ইনজুরি থেকে সেরে ওঠার আশা করছেন তিনি, তবে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টে ফিরে আসার লক্ষ্য রাখবেন না এই অভিজ্ঞ ফাস্ট বোলার, যাতে অ্যাশেজের জন্য সময়মতো পুরোপুরি ফিট হয়ে উঠতে পারেন।

গত সপ্তাহে ল্যাঙ্কাশায়ারের হয়ে খেলতে গিয়ে গ্রোইন ইনজুরিতে পড়লেও ১ জুন থেকে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্টের জন্য ১৫ সদস্যের স্কোয়াডে জায়গা পেয়েছেন অ্যান্ডারসন। অ্যাশেজের প্রথম টেস্ট শুরু হবে ১৬ জুন থেকে এজবাস্টনে।

কনুইয়ের ইনজুরির কারণে অ্যাশেজ থেকে ছিটকে যাওয়ার পর ৪০ বছর বয়সী এই বোলার টেস্টে ৬৮৫ উইকেট নিয়ে ইংল্যান্ডের শীর্ষ স্থানীয় বোলার।

“অবশ্যই ইনজুরিতে পড়া টা খুব একটা ভালো কিছু নয়, কিন্তু এটা সম্ভবত সেরা ফলাফল, কারণ এটা একটা নিম্নমানের ব্যাপার। আমি মনে করি কয়েক সপ্তাহের মধ্যে আমি পুরোপুরি ফিটনেস ফিরে পাব,” অ্যান্ডারসন বিবিসির টেইলেন্ডারস পডকাস্টকে বলেছিলেন।

“এটি হতাশাজনক কারণ আপনি সবসময় ভাল বোধ করতে চান এবং সিরিজের আগে পর্যাপ্ত বোলিং পেতে চান এবং আপনি সতেজ থাকতে চান। সুতরাং এটি এখন এই গ্রীষ্মের মধ্যে সেরা রুটের পরিকল্পনা করার চেষ্টা করার বিষয়ে।

“আমার মনে হয়েছিল যে আমার এই খেলাটি খেলতে হবে তাই এটি আদর্শ নয়, তবে আমি এটি নিয়ে চাপে নেই।

অ্যান্ডারসন বলেন, ২০১৯ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম টেস্টের প্রথম দিনে ইনজুরিতে পড়ার পর থেকে তিনি একই ধরনের পরিস্থিতি এড়ানোর চেষ্টা করছেন।

পিঠের ইনজুরির কারণে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ ২-২ ব্যবধানে ড্র হওয়ার পর অ্যাশেজ সিরিজ ধরে রেখেছে অস্ট্রেলিয়া।

অ্যান্ডারসন আরও বলেন, ‘আমি দিন দিন এটা নিয়ে যাচ্ছি এবং দেখছি এটা কেমন হয়, কারণ অবশ্যই আমি এটাকে আরও খারাপ করে কোনো ঝুঁকি নিতে চাই না।

“আমি আরও আত্মবিশ্বাসী যে আমি এটি (২০১৯ সালের তুলনায়) সঠিকভাবে করতে পারব এবং অ্যাশেজকে একটি ভাল ক্র্যাক দিতে পারব।