রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের বিপক্ষে টস জিতে প্রথমে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন পাঞ্জাব কিংসের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক স্যাম কারান। বিরাট কোহলি এবং ফাফ ডু প্লেসিসের জুটি একটি শক্ত উদ্বোধনী জুটি তৈরি করে দলকে দুর্দান্ত শুরু এনে দেয়। ১৫ ওভারে প্রথম উইকেটে ১৩০ রান যোগ করে তারা। ১৬তম ওভারের প্রথম বলে ডু প্লেসিসকে বিমার ছুঁড়ে দেন স্যাম কারান। যদিও বোলার তার ভুলের জন্য দ্রুত ক্ষমা চেয়েছিলেন, কোহলি মজা করে তাকে ঘুষি মারার ভান করেছিলেন।

কোমরের উচ্চতা নো-বল কুরানের পক্ষে ব্যয়বহুল প্রমাণিত হতে পারেনি কারণ তিনি ফলো-আপ ডেলিভারিতে স্মার্টভাবে তার গতি মিশ্রিত করেছিলেন যা ফ্রি-হিট ছিল। ডু প্লেসিস কেবল মাত্র এক কক্ষের জন্য বলটি পিছনের স্কোয়ার লেগের দিকে ফ্লিক করতে পেরেছিলেন। এতে নো-বল নিক্ষেপ করা সত্ত্বেও কুরান ওভারে মাত্র ৭ রান দেন।

অধিনায়ক কোহলি ও ডু প্লেসিস হাফ সেঞ্চুরি করে ১৩৭ রানের উদ্বোধনী জুটিতে পিবিকেএসের বিপক্ষে আরসিবি তাদের আইপিএল ম্যাচে চার উইকেটে ১৭৪ রান তোলে।

ম্যাচের প্রভাবশালী খেলোয়াড় হিসেবে ডু প্লেসিসের নেতৃত্বে থাকা কোহলি ৪৭ বলে পাঁচ চার ও একটি ছক্কাসহ ৫৯ রান করেন এবং ডু প্লেসিস ৫৬ বলে ৫টি চার ও সমান সংখ্যক ছক্কাসহ ৮৪ রান করেন।

হরপ্রীত ব্রার তিন ওভারে ৩১ রানে ২ উইকেট নিয়ে পিবিকেএস-এর সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী হন।

শিখর ধাওয়ানের কাঁধে চোট পাওয়ায় টানা দ্বিতীয় ম্যাচে পিবিকেএসের নেতৃত্ব দিয়েছেন স্যাম কারান। ইংলিশ ব্যাটসম্যান লিয়াম লিভিংস্টোন শেষ পর্যন্ত নাথান এলিসের সাথে প্রথম একাদশে জায়গা পেয়েছেন।