ইংল্যান্ডের অল-রাউন্ডার মঈন আলি মঙ্গলবার পাকিস্তানের বিরুদ্ধে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে দলকে নেতৃত্ব দেবেন কারণ মনোনীত অধিনায়ক জস বাটলার চোটের কারণে ম্যাচটি মিস করবেন। মঈনের দাদা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরে পাকিস্তান থেকে ইংল্যান্ডে চলে আসে, তিনি পাকিস্তানের ইংরেজ জাতীয় দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার অনুভূতি সম্পর্কে ম্যাচের আগে কথা বলেন। পাকিস্তানে ৭ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে থ্রি লায়ন্সরা, দীর্ঘ ১৭ বছরের মধ্যে এই প্রথম তারা দেশটিতে আসছে। ম্যাচের আগে মঈন বলেন, অধিনায়ক হওয়া সে যেই বিপক্ষেই হোক না কেন, এটা একটা বড় সম্মানের বিষয়। কিন্তু পাকিস্তানে এটা করার জন্য, এত দিন পর ফিরে আসা। তিনি আরও বলেন,তার উপরে পরিবার যারা দিনের বেলায় এখান থেকে ফিরে এসেছিল, ইংল্যান্ড দলকে নেতৃত্ব দেওয়া আশ্চর্যজনক এবং অসাধারণ ।  মঈন বলেন, আমি মনে করি আমি আমার ধর্ম, বাবা-মা এবং সবকিছুর প্রতিনিধিত্ব করি। এটি আমার এবং আমার পরিবার, আমার মা এবং বাবা, প্রত্যেকের জন্য একটি খুব গর্বের মুহূর্ত। আমি যাদের প্রতিনিধিত্ব করি তারা প্রত্যেকেই আমার জন্য খুব খুশি।

মঈন সব সময় পাকিস্তানে খেলতে চায় কিন্তু কখনও ভাবেনি যে তিনি এই সুযোগটি পাবেন কারণ ইংল্যান্ড শেষবার ২০০৫ সালে দেশটি সফর করে। তিনি যোগ করেন,আমি এমন একজন যে প্রতিটি ক্রিকেটীয় দেশে ক্রিকেট খেলতে চায়। পাকিস্তান ও জিম্বাবুয়ে ছিল এমন দুটি দেশ, যাদের আমি সত্যিই সফর করতে চেয়েছিলাম। এটা বিস্ময়কর যে আমরা এখানে এসেছি: ইংল্যান্ডের জন্য পাকিস্তানে আসা টা একটা বড় ব্যাপার। ইংল্যান্ডের হয়ে এখনও পর্যন্ত ৬৪টি টেস্ট, ১২১টি ওয়ান ডে ও ৫৫টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেন মইন আলি।