ইংল্যান্ডের অল-রাউন্ডার মঈন আলি বলেন, কোচ ব্রেন্ডন ম্যাকালামের সঙ্গে ‘সৎ’ কথা বলার পর টেস্ট ক্রিকেটে ফেরার দরজা বন্ধ করে দেন তিনি। ২০১৪ সালে মঈনের টেস্ট অভিষেক ঘটে এবং ৬৪ টি টেস্টে ২৮.২৯ গড়ে ২,৯১৪ রান সংগ্রহ করে ১৯৫ টি উইকেট লাভ করেন। ৩৫ বছর বয়সী এই খেলোয়াড় গত বছরের সেপ্টেম্বরে খেলার দীর্ঘতম ফরম্যাট থেকে অবসরের ঘোষণা দিলেও গত জুনে তিনি বলেন, ম্যাককুলাম তাকে লাল বলের সম্ভাব্য প্রত্যাবর্তনের কথা বলেন।

ইংল্যান্ডের টেস্ট দল ডিসেম্বরে রাওয়ালপিন্ডি, মুলতান ও করাচিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের সিরিজ খেলবে, কিন্তু মঈন বলেন, যে তিনি তাদের সাথে থাকবেন না। “আমি বাজ (ম্যাককুলাম) এর সাথে একটি সৎ চ্যাট করেছি এবং আমি নিজেকে আরও এক মাসের জন্য হোটেলে আটকে থাকতে এবং আমার সামর্থ্যের সর্বোত্তম ভাবে খেলতে দেখতে পাচ্ছি না,” মঈন সোমবার ডেইলি মেইলের জন্য তার কলামে লিখেন। “বাজ আমাকে ফোন করে, আমরা দীর্ঘ সময় ধরে কথা বলিএবং আমি বলি, ‘দুঃখিত, আমার কাজ শেষ হয়ে গেছে’। সে বোঝে, অনুভূতিটা জানে। টেস্ট ক্রিকেট অনেক কঠিন কাজ। আমার বয়স ৩৫ বছর এবং কিছু একটা দিতে ইচ্ছুক।

“আমি আমার ক্রিকেট উপভোগ করতে চাই এবং আমার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করা এবং তারপর আমার সমস্ত কিছু দেওয়ার জন্য সংগ্রাম করা ঠিক হবে না। আমার ক্যারিয়ারের সেই দিকের দরজা বন্ধ করার সময় এসেছে। ইংল্যান্ডের হয়ে ৬৪টি টেস্ট খেলা টা একটা বিশেষ সুযোগ এবং স্বপ্ন পূরণ হয়ছে। আহত জস বাটলারের অনুপস্থিতিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে ৪-৩ ব্যবধানে সিরিজ জয়ে মঈন ইংল্যান্ডের টুয়েন্টি২০ দলের অধিনায়কত্ব করেন এবং এই মাসে অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠেয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।