নিউ ইয়র্কের নাসাউ কাউন্টি ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়ামে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে নিজের ভবিষ্যদ্বাণী করলেন পাকিস্তানের প্রাক্তন কোচ ওয়াকার ইউনুস।

নিজেদের প্রথম ম্যাচে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হারের পর আজ ভারতের মুখোমুখি হচ্ছে পাকিস্তান।

৫ জুন আয়ারল্যান্ডকে ৮ উইকেটে হারিয়ে দারুণ ফর্মে রয়েছে ভারত।

ওয়াকার ইউনুস মনে করেন, পিচের কন্ডিশন ম্যাচকে সমান করে তুলবে। আমার মন বলছে পাকিস্তান, কিন্তু নিউ ইয়র্কের পিচ ফাস্ট বোলারদের পক্ষে।

ওয়াসিম আকরাম বলেন, পাকিস্তানের বিপক্ষে জয়ের সম্ভাবনা ৬০ শতাংশ। তবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফলাফল দ্রুত বদলে যেতে পারে বলেও জানান তিনি। তিনি বলেন, ‘ভারত সাধারণত ভালো দল এবং ফেভারিট, কিন্তু টি-টোয়েন্টিতে একটি ভালো ইনিংস বা স্পেল ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারে। সবাই এই ম্যাচের দিকে তাকিয়ে আছে।

ভারত-আয়ারল্যান্ড ম্যাচে নিউ ইয়র্কের পিচকে ‘আনপ্রেডিক্টেবল’ বলা হয়েছে। সমালোচনার মুখে স্টেডিয়ামের পিচ সমস্যা সমাধানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)।

আইসিসি বলেছে, ‘নাসাউ কাউন্টি ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামের পিচগুলো আমরা যতটা ধারাবাহিকভাবে খেলতে চেয়েছিলাম ততটা ধারাবাহিকভাবে খেলেনি। বাকি ম্যাচগুলোতে পিচের উন্নতির জন্য গ্রাউন্ডস টিম কঠোর পরিশ্রম করছে।

পাকিস্তান ও ভারত একে অপরের বিরুদ্ধে সাতটি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ম্যাচ খেলেছে, যার মধ্যে ভারত পাঁচটি জিতেছে এবং পাকিস্তান ২০২১ সালে একটি জিতেছে। অন্য ম্যাচটি টাই হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হারের পর পাকিস্তানের একটি জয় দরকার। ভারতের বিপক্ষে আজকের ম্যাচের পর ১১ জুন কানাডার বিপক্ষে খেলবে তারা।

স্কোয়াড:
পাকিস্তান একাদশ: বাবর আজম (অধিনায়ক), মোহাম্মদ রিজওয়ান, সাইম আইয়ুব, আজম খান, শাদাব খান, ফখর জামান, শাহীন শাহ, উসমান খান, ইমাদ ওয়াসিম, আবরার আহমেদ, মোহাম্মদ আব্বাস আফ্রিদি, মোহাম্মদ আমির, নাসিম শাহ, আফ্রিদি, হারিস রউফ, ইফতিখার আহমেদ।

ভারত একাদশ: রোহিত শর্মা (অধিনায়ক), হার্দিক পান্ডিয়া, বিরাট কোহলি, সূর্যকুমার যাদব, যশস্বী জয়সওয়াল, ঋষভ পন্থ (উইকেটরক্ষক), শিবম দুবে, সঞ্জু স্যামসন (উইকেটরক্ষক), রবীন্দ্র জাদেজা, অক্ষর প্যাটেল, যুজবেন্দ্র চাহাল, আর্শদীপ সিং, কুলদীপ যাদব, জাসপ্রিত বুমরাহ, মোহাম্মদ শামি। সিরাজ।
রিজার্ভ: শুভমান গিল, রিঙ্কু সিং, খলিল আহমেদ, আবেশ খান।